English Version

আবাসিক হোটেলে ধর্ষণ, ম্যানেজারসহ আটক-৪

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

রেজাউল করিম রেজা, মাদারীপুর: ফেসবুকের মাধ্যমে ইতালি প্রবাসী এক যুবকের সঙ্গে এক শিক্ষার্থীর পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সেই সূত্রে রবিবার সকালে প্রেমিক বায়েজিদের সঙ্গে দেখা করতে আসে ওই তরুণী। প্রথম দেখাতেই তরুণীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বায়েজিদ মাদারীপুরের একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে ধর্ষণ করে।

শহরের ভুঁইয়া ইন আবাসিক হোটেলে এ ঘটনা ঘটেছে। এক পর্যায়ে ওই তরুণী আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। এই ঘটনায় হোটেল ম্যানেজারসহ সহযোগী ৪ জনকে আটক করেছে মাদারীপুর থানা পুলিশ। আটকৃতরা হলো ম্যানেজার মিজানুর রহমান, মো. বাইজিত মাতুব্বর (২৩), মো. পিয়াস জামান (২৩), শান্ত রহমান (২২)।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ইতালি প্রবাসী বায়েজিদ প্রবাসে থাকা অবস্থায় ফেইসবুকে পরিচয়ের সূত্র ধরে বায়েজিদ ও তার সহযোগীরা মাদারীপুর শহরের ভুঁইয়া ইন আবাসিক হোটেলে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত থাকা অবস্থায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বায়েজিদ একাধিকবার ধর্ষণ করে। এরপর ওই শিক্ষার্থীকে বিয়ে করতে না চাওয়ায় একাধিক ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা চেষ্টা করে।

অভিযুক্ত বায়েজিদ মাতুব্বর শিবচর উপজেলা নিলখী গ্রামের আক্কাস মাতুব্বরের ছেলে। ধর্ষণের ঘটনায় বায়েজিদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এছাড়াও এই ঘটনায় ভুঁইয়া ইন হোটেলের ম্যানেজারসহ ৪ সহযোগীকে আটক করেছে পুলিশ। ধর্ষণের শিকার শিক্ষার্থী মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ধর্ষণের শিকার শিক্ষার্থীর চাচাতো ভাই জানায়, ফেইসবুকে পরিচয়ে তার সাথে দেখা করতে এসে এই অবস্থা হয়েছে।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুল ইসলাম মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আমরা প্রাথমিকভাবে হোটেল ম্যানেজারসহ ৪ জনকে আটক করেছি এবং একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বিডিটুডেস/এএনবি/ ৩১ আগস্ট, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

seven − four =