English Version

আমালের ত্রাণ পেয়ে বন্যার্তদের মুখে হাসি

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

আবুল বাশার মিরাজ, বগুড়া: জনবিচ্ছিন্ন দুর্গম চর। নদীপথই যেখানে পৌঁছানোর একমাত্র মাধ্যম। ফেরিতে (মেশিন চালিত নৌকা) করে যেতেও লাগে ঘন্টা দুয়েক। একে তো করোনাকালে কর্মহীন তার সাথে আবার বন্যা। বন্যায় ঘর-বাড়ি আর ফসলি জমি তলিয়ে যাওয়ায় নিদারুণ কষ্টে চরের মানুষ।

বলছি বগুড়ার সারিয়াকান্দির উপজেলার শনপচাঁ চরের কথা। অনাহারে দিনানিপাত করা এসব মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়েছে সম্প্রতি ফোর্বস বিজয়ী স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান আমাল ফাউন্ডেশন। চরের তিনশত এর অধিক পরিবারে তারা ত্রাণ সহযোগিতা পৌঁছে দিয়েছেন।

ত্রাণ পেয়ে শনপচাঁ চরের বাসিন্দা ইউনুস আলী বলেন, ‘আমাল ফাউন্ডেশন সব সময়ই তাদের খোঁজ খবর রাখেন। বন্যার পানিতে ফসলী জমি তলিয়ে গেছে, বাড়িঘর নষ্ট হয়ে গেছে। চরে এসে কেউ খোঁজ নেয়না আমাদের। মমতাময়ী ইভ আপাই আমাদের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। বারবার আমাদের মাঝে ত্রাণ সহযোগিতা পৌঁছে দিয়েছেন, আমরা তার প্রতি কৃতজ্ঞ।’

আমাল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক ইশরাত করিম ইভ বলেন, ‘করোনা ও বন্যার্ত মানুষের ক্ষুধার কষ্টের কথা চিন্তা করে সারাদেশেই অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। তারই ধারাবাহিকতায় প্রত্যন্ত শনপচাঁ চরে কষ্টে থাকা মানুষের পাশে দাঁড়াতে পেরে ভালো লাগছে।

বন্যায় মানুষের বাড়িঘর ফসলি জমি নষ্ট হয়ে গেছে, আমাদের সাধ্যমত সেগুলো পুনর্বাসনের জন্যও উদ্যোগ নিয়েছি। সকলের সহযোগিতা থাকলে আমরা ভালোভাবে কাজটি করতে পারবো।’ বিডিটুডেস/এএনবি/ ২৩ আগস্ট, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

eleven + 12 =