English Version

এক বিস্ময়কর মাছ ভাইরাল…..

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

বিডিটুডেস ডেস্ক: এক অস্ট্রেলিয়ান সম্প্রতি ধরেছেন এক অদ্ভুত মাছ। এখানে মাছ বলা হলেও আসলেই কী এটা মাছ? নাকি কোনো প্রাগৈতিহাসিক প্রাণী? নাকি কোনো ভিনগ্রহের প্রাণী? যারা এলিয়েনে বিশ্বাস করেন তাদের কাছে প্রথম দর্শনে প্রাণীটাকে কোনো এলিয়েনের বাচ্চা বলেই মনে হবে। এটা যাই হোক না কেন, অদ্ভুত ও বিদঘুটে দেখতে প্রাণীটির ছবি সোশাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গেছে। গার্ডিয়ান জানায়, নর্দান টেরিটোরি কাকাদু ন্যাশনাল পার্কে অ্যান্ড্রু রোজ মাছ ধরছিলেন বরশিতে। হঠাৎ করেই ১৫ সেন্টিমিটার লম্বা মাছটি দেখে বরশিতে আটকে তুলে আনেন তিনি। অ্যান্ড্রু নিজেই বললেন, এটা দেখতে প্রাগৈতিহাসিক কোনো প্রাণীর মতো। যেন কোনো সিনেমার দৃশ্যে এটাকে দেখছি। এটা ঠিকমতো সাঁতরাতে পারছিল না। আমি ওটাকে ধরে তুলে ফেলি। তুলে অবাক হয়ে যাই। এর অদ্ভুত দেখতে মাছ আমি আগে পাইনি। আমি জানি না এটা কি। এটার ছবি তুলে রাখি। পরে হুত থেকে ছাড়িয়ে আবারো পানিতে ছেড়ে দেই। ১৯৭৯ সালে ‘অ্যালিয়েন’ সিনেমার কথা বলছিলেন অ্যান্ড্রু।

হেলথ টিপস পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

তার সঙ্গে বন্ধু অ্যাংলারও ছিলেন মাছ ধরার সময়। তারা বলেন, এটার রং অনেকটা বেগুনী আভার বাদামী। মাথাটা তো পুরাই প্রাগৈতিহাসিক প্রাণীর মতো। দেহটা ঈল মাছের মতো। ধরার পর এটা কিলবিল করে নিজেকে ছাড়িয়ে নেয়ার চেষ্টাও করছিল না। যেন ওটা পানির ওপর থেকে উঠে একেবারে মূর্তি হয়ে গেছে। পানিতে ছাড়ার আগে অ্যান্ড্রু প্রাণীটার কয়েকটি ছবি নেয়। ওগুলো শেয়ার করেছেন নিজের ফেসবুক পেজে। এসব ছবিতে ঝাঁপিয়ে পড়েন নেটিজেনরা। হাজারো মন্তব্য পড়তে থাকে।

একজন বলেন, শিশু এলিয়েন। আরেকজন বলছেন, এটা কোনো মাছ। কেই বলছেন, প্রিডেটরের প্রেমের ফসল এটা। তবে এবিসি নিউজ তাদের এক প্রতিবেদনে জানায়, এটা এক বিরল গবি প্রজাতির পোকা। মিউজিয়াম অ্যান্ড আর্ট গ্যালারি অব দ্য নর্দান টেরিটরির কিউরেটর ড. মাইকেল হ্যামার জানান, মনে হচ্ছে মাছটি আসলে গোবি পোকা। এমনও হতে পারে এটা একেবারে নতুন প্রজাতির কোনো প্রাণী। এর কোনো চোখ নেই। কাচের মতো এবং সূক্ষ দাঁত দেখতে ভয়ংকর। এর মাথার একটু নিচের দিকের ফুলকা একেবারে সিনেমার ড্রাগনের কথা মনে করিয়ে দেয়। লেজটাও একেবারে আলাদা। দেখতে বদখত হলেও এরা বিপজ্জনক প্রাণী নয়। সারাজীবনই কাদার নিচে বাস করে। তাই মানুষের চোখে পড়ে না একেবারেই। বিডিটুডেস/আরএ/২৮ মে, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

sixteen + 9 =