English Version

গুজব ও গণপিটুনি থেকে বিরত থাকতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পুলিশ সুপার

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

গৌতম চন্দ্র বর্মন, ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ে গুজব ছড়ানো, গুজবে কান না দিতে ও গণপিটুনিতে শামিল না হওয়ার লক্ষ্যে জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পুলিশ সুপারের গুজব বিষয়ক জন সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা করা হয়েছে।বুধবার (২৪ জুলাই) ঠাকুরগাঁও জেলার বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় পুলিশ সুপার মোহাঃ মনিরুজ্জামান, পিপিএম-সেবা, এর নির্দেশে পুলিশের কর্মকর্তাদের দল সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করে যাচ্ছে।এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার সকাল ১১ টায় ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার মোহাঃ মনিরুজ্জামান, পিপিএম-সেবা, ঠাকুরগাঁও বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ছাত্র ও শিক্ষকদের সাথে গুজব বিষয়ক জনসচেতনতামূলক আলোচনা করেন।

আলোচনায় পুলিশ সুপার মোহাঃ মনিরুজ্জামান বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, গুজবে কান দিবেন না, গুজব ছড়াবেন না, ছেলে ধরা ও আগামী কয়েক দিন বিদ্যুৎ সংযোগ থাকবে না এই ধরণের গুজব ছড়ানোর একটা অপচেষ্টা চলছে। এই ধরণের গুজব যারা ছড়াচ্ছে তাদেরকে নিকটস্থ থানার পুলিশকে ধরিয়ে দিন।

অপরদিকে বুধবার দুপরের ঠাকুরগাঁওয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল-আসাদ মোহাঃ মাহফুজুল ইসলাম ঠাকুরগাঁও সরকারি মহিলা কলেজের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের ও শিক্ষকদের সাথে গুজব বিষয়ক জনসচেতনতামূলক আলোচনা করেন । এসময় আল-আসাদ মোহাঃ মাহফুজুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের বলেন, ছেলে ধরা গুজব ও আগামী কয়েক দিন বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ থাকবে এই ধরণের গুজব ছড়ানোর একটা অপচেষ্টা চলছে। এই ধরণের কোন গুজব যারা ছড়াচ্ছে এবং কোথাও কোন নারী উত্ত্যক্ত করার ঘটনা দেখতে পেলে ও জানতে পারলে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশকে খবর দিন। ‘ছেলে ধরা নিছকই গুজবে’ কান না দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

ছেলেধরা গুজবে বিভ্রান্ত না হতে ঠাকু‌রগাঁও‌য়ের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী‌দের মা‌ঝে সচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করেছে সদর থানা পুলিশ।এরই অংশ হিসেবে বুধবার দুপু‌রে শহ‌রের ইকো ক‌লেজ সহ বি‌ভিন্ন শিক্ষা প্র‌তিষ্ঠা‌নের শিক্ষার্থীদের মা‌ঝে স‌চেতনাতমূলক বক্তব্য রা‌খেন,ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ও‌সি)আশিকুর রহমান।

হেলথ টিপস পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

এ সময় ও‌সি শিক্ষার্থী‌দের উদ্দে‌শ্যে ব‌লেন,‌ছে‌লে ধরা গুজ‌বের বিরুদ্ধে সবাই‌কে সোচ্চার হ‌তে হ‌বে। পদ্মাসেতুতে মানুষের মাথা ও রক্ত লাগবে- এটি সম্পূর্ণ গুজব। এ ধরনের গুজবে কান না দেওয়ার পরামর্শ দেন তি‌নি।তি‌নি ব‌লেন, কেউ যেন ছেলেধরা সন্দেহে কাউকে গণধোলাই না দেন । স‌ন্দেহভাজন কোন ব্য‌ক্তি‌কে দেখ‌লে নিকটস্থ থানায় কিংবা পু‌লিশ হেল্প লাই‌নে যোগা‌যোগ করারও পরামর্শ দেন শিক্ষার্থী‌দের ।

ছেলেধরা গুজব ছড়িয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় অনেককে গণপিটুনিতে হত্যার মাধ্যমে একটা অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরী করার চেষ্টা চলছে বলে মনে করেন ঠাকুরগাঁও জেলা পুলিশ।এরই লক্ষ্যে বুধবার সকাল থেকেই জেলার বিভিন্ন স্কুল কলেজে গিয়ে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক,গভনিং বডির সদস্য ও ছাত্রছাত্রীদের সাথে নিয়ে করেছেন মতবিনিময় সভা। এসময় উপস্থিত ছিলেন, ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেলের আবু তাহের মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, সদর থানার ওসি অপারেশন গোলাম মুর্তুজা, এসআই ফিরোজা প্রমুখ।

এসময় পুলিশের সদস্যরা বলেন, গুজবের সাথে তাল মিলিয়ে কোন মানুষকে হত্যা করার অধিকার কারো নেই। গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে ছেলেধরা সন্দেহে কাউকে গণপিটুনি দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। যদি কাউকে ছেলেধরা সন্দেহ হয় তাহলে তাৎক্ষণিক পুলিশকে সংবাদ দেয়ার অনুরোধ জানান তারা। বিডিটুডেস/আরএ/২৬ জুলাই, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

8 + 14 =