English Version

গুরুদাসপুরে অতিরিক্ত টাকা আদায় বন্ধের দাবিতে লিচু আড়ৎ মালিক সমিতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

শাকিল আহম্মেদ, (গুরুদাসপুর) নাটোর: করোনা ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে এখন লিচু চাষীদের খাঁড়ার ওপর মড়ার ঘাঁ অবস্থা চলছে। অর্ধেক লিচু বাগানেই নষ্ট হয়ে গেছে। তারপরেও লিচু বিক্রির জন্য স্থানীয় আড়তদারদের দিতে হচ্ছে কমিশনের নামে অতিরিক্ত টাকা।

শুক্রবার (২৯ মে) দুপুর ৩ ঘটিকায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার বিয়াঘাট ইউনিয়নের সুজার মোড়ে লিচু চাষীদের কাছে থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায় বন্ধের দাবিতে বেড়গঙ্গারামপুর বৃহৎ লিচুর আড়ৎ মালিক সমিতির বিরুদ্ধে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার ঘতিগ্রস্ত সাধারণ লিচু চাষীরা এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। উক্ত মানববন্ধনে কমিশনের নামে অতিরিক্ত টাকা আদায় বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

মানববন্ধনে বিয়াঘাট সরকার পাড়ার আলাউদ্দিন মোল্লা বলেন, মাথার ঘাম পায়ে ফেলে রাত-দিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে লিচু উৎপাদন করি। এবছর করোনা ও আম্ফান ঝড়ের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত চাষী মহল। এবছর লিচু বিক্রি করে খরচের টাকা যোগানোই দুষ্কর হয়ে পড়েছে। তারপরেও এক হাজার টাকার লিচু বিক্রি করলে কমিশনের নামে ৬০ থেকে ৮০ টাকা করে হাতিয়ে নিচ্ছে আড়ৎদার মালিক সমিতি।

একই অভিযোগ করে বিয়াঘাট সরকার পাড়ার লিচু চাষী ইব্রাহীম আলী তিনি বলেন, বেড়গঙ্গারামপুর বৃহৎ লিচুর আড়ৎ মালিক সমিতির মাধ্যমেই এই জায়গা থেকে উৎপাদিত লিচু রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি হয়। তবে লিচু বিক্রি করতে গেলে তারা কমিশনের নামে শতকরা ৮ টাকা হারে অতিরিক্ত টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে আমাদের কাছে থেকে। বিডিটুডেস/এএনবি/ ৩০ মে, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

twelve − 9 =