English Version

“ছেলে ধরা” গুজবে সাজেদুর ফিরে পেল তার স্বজনদের

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

নাজমুস সাকিব মুন, পঞ্চগড়: সাজেদুর রহমান প্রামানিক (৩২)। মানসিক ভাবে ভারসাম্যহীন। প্রায় আড়াই মাস আগে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফিরেননি। সম্ভাব্য সব জায়গায় সাজেদুর কে খুঁজে তার পরিবার। কিন্তু খোঁজ মেলেনি সাজেদুরের। তবে “ছেলে ধরা” নামক যে আতঙ্ক সারা দেশবাসীকে ভাবিয়ে তুলেছে সেটাই নাটোরের এক পরিবারের জন্য আশীর্বাদ হিসেবে দেখা দেয়। সোমবার সাজেদুরের পরিবারের খোঁজ মিলেছে। সাজেদুরকে ফিরে পেয়ে তার পরিবারে উৎসব নেমে এসেছে।

ছেলে ধরা সন্দেহে সোমবার পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার এলএসডি রোড সংলগ্ন এলাকায় সাজেদুর কে আটক করে স্থানীয়রা। সেখানে তাৎক্ষণিক একদল তাকে মারধর করে। এরই মধ্যে আরেকদল ভিড় ঠেলে সাজেদুরকে উদ্ধার করে দেবীগঞ্জ থানায় খবর দেয়। থানা পুলিশ সাজেদুর কে থানা হেফাজতে নিয়ে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করেন। এরপর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তার পরিচয় সম্পর্কে জানতে পারে পুলিশ। সাজেদুর নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার সাহাপুর এলাকার মন্টু প্রামাণিকের ছেলে।

হেলথ টিপস পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

আজ (মঙ্গলবার) সাজেদুর এর ভাই সায়মন হোসেন নাটোর থেকে দেবীগঞ্জে আসলে প্রয়োজনীয় আইনি প্রক্রিয়া শেষে সাজেদুর কে তার ভাইয়ের নিকট হস্তান্তর করে পুলিশ। এই বিষয়ে দেবীগন্জ থানার ওসি (তদন্ত) শাহ আলম জানান, সাজেদুর সঠিক তথ্য দিতে না পারলেও যেটুকু জানান, তাতেই পরিবারের ঠিকানা উদ্ধার করা সম্ভব হয়। পরে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সাজেদুর আড়াই মাস ধরে নিখোঁজ ছিলেন। পরে ভাই সায়মন হোসেনের কাছে তাকে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান ওসি শাহা আলম। উল্লেখ্য, চলতি মাসের ১৭ তারিখ সাজেদুর এর বাবা মুনছের আলী তার নিখোঁজের বিষয়টি জানিয়ে নাটোরের গুরুদাসপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। বিডিটুডেস/আরএ/২৩ জুলাই, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

two × 4 =