English Version

ঠাকুরগাঁওয়ে বাড়ীতে মায়ের লাশ রেখে জেডিসি পরীক্ষা দিল মেয়ে!

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

 

গৌতম চন্দ্র বর্মন, ঠাকুরগাঁও: বাড়ীতে মায়ের লাশ রেখে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন জেমি আক্তার নামের এক জেডিসি পরীক্ষার্থী। ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার সমিরউদ্দিন স্মৃতি মহাবিদ্যালয়ের ২০১নং কক্ষে মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে বিশ্রামপুর দাখিল মাদরাসা থেকে জুনিয়র দাখিল পরীক্ষা (জেডিসি) দিচ্ছে সে।

বৃহস্পতিবার মায়ের লাশ বাড়ীতে রেখে বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ওই পরীক্ষার্থী। জেমি আক্তার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভানোর ইউনিয়নের বিশ্রামপুর আগাটলা গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের মেয়ে। কেন্দ্র সচিব ও বড়পলাশবাড়ী আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ কুসুম উদ্দীন জানান, পুরো ৩ ঘন্টায় পরীক্ষা দিয়েছেন ওই পরীক্ষার্থী। চোখে জ্বল নিয়ে পরীক্ষা দিতে আসলেও শান্তনা প্রদানের সময় পরীক্ষা ভালো হয়েছে বলে জানিয়েছে জেমি।

পরীক্ষার্থীর ভাই খাদেমুল ইসলাম জানান, গত দেড় বছর ধরে ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন তার মা রোকেয়া খাতুন (৩০)। গত তিনমাস হলো গুরুতর অসুস্থ্য অবস্থায় বিছানায় কাতরাচ্ছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার ভোররাত সাড়ে ৩টার সময় তিনি মারা যান। খাদেমুল ইসলাম আরও জানান, আজ দুপুর ২টার সময় নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হবে তার মা রোকেয়া খাতুনকে।

সকালে খালি মুখে চোখে জ্বল নিয়ে পরীক্ষা দিতে গেছে তার আদরের ছোট বোন জেমি আক্তার। মাকে হারিয়ে ভাইবোন দুজনেই অসহায় হয়ে গেলেন বলে দুঃখ প্রকাশ করেন। ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম জানান, বিষয়টি অত্যন্ত কষ্টের। পরীক্ষার্থীদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান তিনি। বিডিটুডেস/এএনবি/ ০৭ নভেম্বর, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

2 × two =