English Version

নওগাঁয় চুরি যাওয়া দের লাখ টাকা যেভাবে উদ্ধার করলো পুলিশ!

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

জি এম মিঠন, নওগাঁ: চুরি যাওয়া দের লাখ টাকা যেভাবে উদ্ধার করলো পুলিশ। নওগাঁর নিয়ামতপুরের হাজিনগর ইউনিয়নের শালবাড়ী গ্রামে অবস্থিত আমান গ্রুপের প্রতিষ্ঠান আনোয়ারা পোল্ট্রি এন্ড হ্যাচারী লিঃ হতে চুরি যাওয়া ১ লক্ষ ৭৯ হাজার টাকার মধ্যে ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা উদ্ধারসহ এক চোরকে আটক করেছে নিয়ামতপুর থানা পুলিশ।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২১ আগস্ট শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় আনোয়ারা পোল্ট্রি এন্ড হ্যাচারী লিঃ এর সহকারী ব্যবস্থাপক মোঃ মতিউল হাসান তার অফিস কক্ষে ১ হাজার টাকার নোট ১০০ টির একটি বান্ডিল, ৫০০ টাকা নোট ১০০টির একটি বান্ডিল, ১০০ টাকার নোট ২০০ টির দুইটি বান্ডিলসহ খুচরা ৯ হাজার ৫০ টাকা মোট ১ লক্ষ ৭৯ হাজার ৫০ টাকা রেখে হ্যাচারীতে অবস্থিত বাসভবনে যায়।

পরদিন সকাল ৮টায় অফিসে এসে ভেতর থেকে দরজা লক দেখে স্টোর অফিসার, সিকিউরিটি গার্ডকে ডেকে দেখালে তারা উপরে সিলিং ভাংগা পায়। বন্ধ দরজা খুলে ভেতরে প্রবেশ করে দেখতে পায় আলমারীর পাল্লা খোলা। আলমারীতে রাখা ১ লক্ষ ৭৯ হাজার ৫০ টাকা চুরি হয়ে গেছে।

ঐ রাতে টহলরত অবস্থায় নিয়ামতপুর থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রুহুল আমীন ও সঙ্গীয় ফোর্স ২২ আগস্ট রাত ২.৩০টায় গাবতলী ব্রীজের নিকট ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা এবং ২ কয়েল ইলেক্ট্রিক তার (যার মূল্য ৬ হাজার) টাকাসহ ঠাকুরগাঁ জেলার ঠাকুরগাঁ উপজেলার মাতৃগাঁও গ্রামের মোঃ এজাকুল হকের ছেলে শাহ আলম (২৫) কে আটক করে।

সকালে আনোয়ারা পোল্ট্রি এন্ড হ্যাচারীর সহকারী ব্যবস্থাপক মোঃ মতিউল হাসান সংবাদ পেয়ে থানায় এসে আটক শাহ আলম ও টাকাগুলোকে চিহ্নিত করেন। এ বিষয়ে নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইন চার্জ হুমায়ন কবির বলেন, আমার ফোর্স প্রতি রাতের মত সেদিনও গাবতলী এলাকায় টহল দিচ্ছিল। গাবতলী ব্রীজের কাছে তাদের তল্লাশি করে নগদ ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ও দুই কয়েল তারসহ শাহ আলমকে আটক করে।

তার বিরুদ্ধে আনোয়ারা পোল্ট্রি ও হ্যাচারী লিঃ এর সহকারী ব্যবস্থাপক মোঃ মতিউল হাসান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। অপরদিকে অফিসার ইন চার্জ হুমায়ন কবিরের নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোশারফ হোসেন, সহকারী উপ-পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম, রুহুল আমীন,

কারুজ্জামান ও সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে উপজেলার সদর ইউনিয়নের মহিষকুড়ি গ্রামের জনৈক মৃত- বাবুলালের ছেলে শ্রী রায়বরের বাড়ীর উত্তর পাশ্বে হতে ৫ গ্রাম হেরোইন (যার আনুমানিক মূল্য ৫০ হাজার টাকা) সহ উপজেলার সদর ইউনিয়নের মহিষকুড়ি হঠাৎপাড়ার গুল মোহাম্মাদের ছেলে পলাশ (২৬) কে আটক করে।

এ বিষয়ে নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইন চার্জ হুমায়ন কবির বলেন, পলাশ কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। আমরা তাকে অনেকদিন যাবত খুুঁজছিলাম। অবশেষে আটক করতে সক্ষম হয়েছি। পলাশের বিরুদ্ধে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বিডিটুডেস/এএনবি/ ২৩ আগস্ট, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

4 × 5 =