English Version

নওগাঁ সদর হাসপাতাল থেকে ৫ মাস বয়সী শিশু চুরি

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

জি, এম মিঠন, নওগাঁ: নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা ৫ মাস বয়সী এক শিশু চুরির ঘটনা ঘটেছে। শিশু চুরির ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর থেকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা লোকজনের মাঝে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এ শিশু চুরির ঘটনাটি ঘটেছে আজ শনিবার দুপুর একটার দিকে। চুরি যাওয়া মাত্র ৫ মাস বয়সী শিশু মুসা নওগাঁ জেলা সদর উপজেলার মঙ্গলপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেন ফরিদ ও বৃষ্টি বেগম দম্পতির ছেলে বলে জানাগেছে।

শিশুটির পরিবারের লোকজন সাংবাদিকদের জানায়, শিশু মুসা ডায়েরীয়াই আক্রান্ত হওয়ায় চিকিৎসার জন্য ৩ দিন ধরে নওগাঁ সদর হাসপাতালের নতুন ভবনে শিশু বিভাগে ভর্তি ছিল। শিশু মুসার সাথে হাসপাতালে ছিলেন শিশুটির মা বৃষ্টি বেগম ও দাদী। আজ শনিবার দুপুর একটারদিকে শিশুটির দাদী হাসপাতাল থেকে বাইরে ঔষুধ কেনার জন্য যান। এসময় শিশু মুসাকে কোলে নিয়ে মা বৃষ্টি বেগম বাথরুমে যাওয়ার জন্য পস্তুতি নিলে অপরিচিতা এক নারী কৌশলে শিশু মুসাকে কোলে নেয়। মা বৃষ্টি বেগম বাধরুম সেরে এসে দাখেন তার শিশু সন্তান মুসা সহ অপরিচিতা ঐ নারী ও নেই।

স্বাস্থ্যের খবর জানুন

এসময় খোঁজাখুজি শুরু করেন গোটা হাসপাতাল এলাকা। এবং শিশু মুসার মা ও দাদী পাগলের মত খোঁজাখুজি শুরু করার পাশাপাশি কান্না ও হৈচৈ শুরু করলে মহূর্তের মধ্যেই শিশু চুরির ঘটনাটি হাসপাতালের প্রতিটি ওয়ার্ডে ছড়িয়ে পড়ে ফলে মহূর্তের মধ্যেই হাসপাতাল সহ এলাকার লোকজনের মাঝে শিশু চুরির ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। ঘটনাটি জানার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সিসি টিভির ফুটেজ দেখে শিশু চুরির বিষয়টি নিশ্চিত হন।

হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্বাবধায়ক ডাঃ মুক্তার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, সিসি টিভি ফুটেজে দেখা যায় একজন বোরখাঁ পড়া নারী শিশু মুসাকে নিয়ে অটোচার্জার যোগে হাসপাতাল এরিয়া থেকে বের হয়ে যান। তিনি আরো বলেন, ঘটনাটি পুলিশকে জানানো হয়েছে এবং পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য কাজ করছে। নওগাঁর সদর মডেল থানার ওসি সোহওয়ার্দি হোসেন জানান, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থানায় খবর দিলে দ্রুত শিশুটিকে উদ্ধারে পুলিশের একাধিক দল কাজ শুরু করেছে। বিডিটুডেস/এএনবি/ ০৫ অক্টোবর, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

12 + fifteen =