English Version

নাইজেরিয়ায় আত্মঘাতী বিস্ফোরণে নিহত ৩০

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

বিডিটুডেস ডেস্ক: ঘটনাস্থলে সেদিন ১৭ জন মারা গেলেও সোমবার মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৩০। গুরুতর আহত হয়েছেন চল্লিশ জনেরও বেশি। প্রশাসনিক সূত্রে খবর, নিহতদের মধ্যে অধিাংশই প্রেক্ষাগৃহের বাইরে থাকা মানুষ। নাইজেরিয়ার কন্ডুগা শহরে পর পর তিনিটি আত্মঘাতী বিস্ফোরণে প্রাণ হারালেন ৩০ জন। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানা গিয়েছে। ঘটনার পিছনে রয়েছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন বোকো হারাম।

রবিবার নাইজেরিয়ার উত্তরপূর্ব প্রান্তের এই শহরে রাত ৯টা নাগাদ প্রথম বিস্ফোরণ ঘটে। ভিড়ে ঠাসা একটি প্রেক্ষাগৃহে স্থানীয় ফুটবল ম্যাচ দেখতে জনসমাগম হয়েছিল। সেখানে জোর করে ঢোকার চেষ্টা করলে এক যুবককে বাধা দেন প্রেক্ষাগৃহের মালিক। এই নিয়ে বচসা বাধলে আচমকা তীব্র বিস্ফোরণ ঘটায় ওই যুবক। তার কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে প্রেক্ষাগৃহের সামনে একটি চায়ের দোকানে বসে থাকা আরও দুই আত্মঘাতী সন্ত্রাসবাদী বিস্ফোরণ ঘটায়।

ঘটনাস্থলে সেদিন ১৭ জন মারা গেলেও সোমবার মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৩০। গুরুতর আহত হয়েছেন চল্লিশ জনেরও বেশি। প্রশাসনিক সূত্রে খবর, নিহতদের মধ্যে অধিাংশই প্রেক্ষাগৃহের বাইরে থাকা মানুষ। অভিযোগ, বিস্ফোরণের পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছতে দেরি করে উদ্ধারকারী দল। শুধু তাই নয়, এত বেশি সংখ্যক আহতদের সাহায্য করার মতো যথেষ্ট পরিমাণ সরঞ্জাম ছিল না। ২০০৯ সাল থেকে নাইজেরিয়ায় রক্ষক্ষয়ী হামলা শুরু করে বোকো হারাম। পরবর্তীকালে প্রতিবেশী ক্যামেরুন, চাড ও নাইজারেও সন্ত্রাসমূলক অভিযান করে এই জঙ্গি সংগঠন। কন্ডুগাতে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে শহরের এক মাছবাজারে তিনটি বিস্ফোরণে অন্তত ১৮ জনের মৃত্যু হয়। ওই বছরের ১৮ জুলাই একটি মসজিদের ভিতরে বিস্ফোরণ ঘটায় বোকো হারাম। ঘটনায় ৮ জন নিহত হন। বিডিটুডেস/আরএ/১৭ জুন, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

4 + 1 =