English Version

বিয়ের প্রলোভনে ডেকে এনে গণধর্ষণ, ৪ ধর্ষক আটক

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

আ: খালেক মন্ডল, গাইবান্ধা: পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে মোবাইলে প্রেম ও পরবর্তীতে বিয়ের আশ্বাসে বাড়ি দেখানোর কথা বলে ঢাকায় প্লাস্টিকের কারখানায় কর্মরত স্বামী পরিত্যক্ত ২০ বছরে এক মেয়েকে আসামি সাহাদত (২০) পিতা আনোয়ারুল সাং চাষকপাড়া গত আগস্ট মাসের শেষ সপ্তাহে গোবিন্দগঞ্জ ডেকে আনে। সাহাদত মেয়েটিকে দূর থেকে তার বাড়ি দেখিয়ে রাতে কোনো এক হোটেলে রাত যাপন করে পরের দিন ঢাকায় পাঠিয়ে দেয়।

মেয়েটি ঢাকা যাওয়ার পর সাহাদত অসহায় মেয়ের সাথে প্রতি নিয়ত মোবাইলে যোগাযোগ রক্ষা করে চলে এবং মেয়েটিকে বিয়ের কথা দিলে সেই প্রলোভনে গত ২৩ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় মেয়েটি গোবিন্দগঞ্জ চলে আসে বাস যোগে। সাহাদত মেয়েটি নিয়ে তার কর্মস্থল চক গোবিন্দ মেগাস্টার হাইওয়ে হোটেলে নিয়ে গিয়ে আসামি জহুরুলের সহযোগিতায় হোটেলের পিছনের একটি ঘরে রাত অনুঃ ৭ টায় ধর্ষণ করে।

এরপর সাহাদত মেয়েটিকে বিয়ে পড়ার কথা বলে আসামি শ্রী নবানু (৩২) পিতা শুনিল সাং কুড়িপাড়ার নিকট হস্তান্তর করলে সে মেয়েটি নিয়ে আসামি জাহিদ হাসান (২৭) পিতা মৃত ইউনুস আলি সাং কষাইপাড়া এর বোয়ালিয়াস্থ বাগানবাড়িতে নিয়ে গিয়ে আসামি নবানু জাহিদের হাতে তুলে দেয়। তথায় আসামি জাহিদ, জাহাঙ্গীর (৩৫) পিতা হামিদ সাং বোয়ালিয়া নয়াপাড়া সহ কয়েকজন মিলে মেয়েটিকে ইচ্ছের বিরুদ্ধে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

আসামি জাহিদ রাতে মেয়েটিকে তার বাগানবাড়িতে তালা মেরে আটকে রাখে এবং পরেরদিন ২৪ সেপ্টেম্বর দিনব্যাপি আসামি জাহিদের বাগানবাড়িতে জাহিদ সহ তার চক্রের সদস্যরা মেয়েটিকে আকুতি-মিনতি শর্তেও একাধিক বার ধর্ষণ করে। এরপর সন্ধ্যার সময় আসামিরা কোনো কাজে বাহিরে গেলে মেয়েটির চিৎকারে প্রতিবেশী এক মহিলা ও পুরুষ এসে রাতে মেয়েটি বাগানবাড়ি হতে কৌশলে বের করে দেয়।

এরপর মেয়েটি সাহাদতকে ফোনে ডেকে আনে। সাহাদত মেয়েটি ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে ঢাকা চলে যাবার জন্য মায়ামনি মোড়ে আনে। মেয়েটি ঢাকা যাওয়ার ভাড়া চাইলে সাহাদত টাকা আনার কথা বলে পালিয়ে যায়। মেয়েটি সারারাত ঢাকা বাসস্ট্যান্ডে রাত কেটে পরের দিন ২৫ সেপ্টেম্বর সকাল অনুঃ ৯ টায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় আসে এবং মেয়েটির বক্তব্য শুনে ওসি গোবিন্দগঞ্জের নেতৃত্বে এসআই আরিফ, মোবারক এএসআই সাইফুলদের সমন্বয়ে একটি টিম সাড়াশি অভিযান চালিয়ে প্রথমে আসামি সাহাদতকে এরপর সাহাদতের তথ্য অনুযায়ী আসামি জাহিদ, জাহাঙ্গীর ও জহুরুল দের আটক করে।

মেয়েটি বাদিনী হয়ে এজাহার দায়ের করে। গ্রেফতারকৃত ২ আসামির জুডিশিয়াল জবানবন্দি ও ২ আসামির রিমান্ডের জন্য অদ্য ২৬ সেপ্টেম্বর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। বিডিটুডেস/এএনবি/ ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

1 × 4 =