English Version

ভক্তদের ধৈর্য ধরার জন্য অনুরোধ জানালেন সাকিব

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

বিডিটুডেস ডেস্ক: ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব গোপন করায় সব ধরনের ক্রিকেট থেকে বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি। এর মধ্যে শর্ত সাপেক্ষে মধ্যে এক বছরের শাস্তি স্থগিত করা হয়েছে। গত ২৯ অক্টোবর থেকে ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত নিষিদ্ধ থাকবেন সাকিব।

আইসিসির দেওয়া নিষেধাজ্ঞার পর থেকেই সারা-দেশজুড়ে ভক্তরা মানবন্ধন ও আন্দোলন করছেন। অনেকেই সাকিবের শাস্তির পেছনে বিসিবির সম্পৃক্ততাও দেখছেন। এর পরেই মুখ খুলেন সাকিব। ভক্তদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে সাকিব তার ফেসবুক পেইজে একটি স্ট্যাটাস দেন।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে সাকিব বলেন,

‘আমি আমার সকল ভক্ত এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছে এই কথাটি দিয়ে শুরু করতে চাই, আমার এবং আমার পরিবারের সবচেয়ে কঠিন সময়ে আপনাদের নিঃশর্ত সমর্থনে আমি নিজেকে খুবই সৌভাগ্যবান অনুভব করছি। এইকয়দিন আমি অনুভব করতে পেরেছি একটি দেশকে প্রতিনিধিত্ব করা কতটা মহান কাজ।

আমি আমার সকল সমর্থকদেরকে শান্ত ও ধৈর্য ধরার জন্য অনুরোধ করছি যারা আমার উপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞার জন্য ব্যথিত হয়েছেন।

আমি এটিকে খুব স্পষ্ট করে বলতে চাই যে আইসিসি দুর্নীতি দমন ইউনিটের পুরো তদন্তটি গোপনীয় ছিল এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) অনুমোদনের ঘোষণার কয়েকদিন আগে আমার কাছ থেকে এটি সম্পর্কে জানতে পেরেছিল। সেদিক থেকে বিসিবি আমাকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছে এবং এজন্য আমি কৃতজ্ঞ।

আমি বুঝতে পেরেছি অনেকেই সাহায্যের জন্য প্রস্তাব দিচ্ছেন এবং আমি সত্যিই এটির প্রশংসা করি। তবে এটার একটি প্রক্রিয়া আছে এবং আমি আমার শাস্তি মেনে নিয়েছি কেননা আমি মনে করেছি এটাই সঠিক সিদ্ধান্ত।

আমার পুরো দৃষ্টি এখন ক্রিকেট মাঠে ফেরার দিকে এবং ২০২০ সালে বাংলাদেশের হয়ে খেলার জন্য। আমার ফেরা পর্যন্ত আমার জন্য প্রার্থনা করুন। ধন্যবাদ।’ সূত্র: আমাদের সময়, বিডিটুডেস/এএনবি/ ০২ নভেম্বর, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

11 − nine =