English Version

ভালো ফলাফল যেমন জরুরী, ভালো মানুষ হওয়াটা আরও জরুরী: শিক্ষামন্ত্রী

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

অমর ডি কস্তা, নাটোর: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, জিপিএ-৫ অর্জনের জন্য শিক্ষার্থীদের চাপ দিলে হবে না। শিক্ষার্থীরা যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী ফলাফল অর্জন করলে সেটাই ভালো। শিক্ষার্থীদের প্রতিভা বিকাশে সহযোগিতা করা উচিত। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে চিন্তা করার, সমস্যা চিহ্নিত ও সমাধান করার সক্ষমতা তৈরী করতে। আমাদের মধ্যে যদি মূল্যবোধ তৈরী না হয়, আমরা যদি মানবিকতা নিয়ে বড় না হই, তাহলে জিপিএ-৫ পেয়ে লাভ নেই। ভালো ফলাফল যেমন জরুরী, তেমনি ভালো মানুষ হওয়াটাও জরুরী।

শিক্ষামন্ত্রী নাটোরের বড়াইগ্রাম ও গুরুদাসপুর উপজেলার এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা এবং পিইসি ও জেএসসি’র দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন। রোববার সকালে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কল্লোল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি বক্তব্য প্রদান করেন।

উপজেলার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বড়াইগ্রাম ও গুরুদাসপুর উপজেলার ৬৬৫ জন জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা এবং কৃতি সকলকে একটি করে ব্যাগ, ক্রেস্ট, সনদ ও বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বই প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে একই সাথে প্রাথমিক ও জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট কৃতিদের মধ্য থেকে দরিদ্র পরিবারের সেরা ২০জন মেধাবী শিক্ষার্থীদের ‘মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস’ শিক্ষাবৃত্তি ও ‘রওশান আরা কুদ্দুস’ শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।

সংগঠনের সভাপতি ও যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি এ্যাডভোকেট কোহেলী কুদ্দুস মুক্তির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে নাটোর-৪ (বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, বিশেষ অতিথি হিসেবে বরিশালের সংরক্ষিত আসনের এমপি সৈয়দা রুবিনা আক্তার মীরা, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সাইদুর রহমান, জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ পিএএ, পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা, জেলা শিক্ষা অফিসার রমজান আলী আকন্দ, ফাউন্ডেশনের দাতা সদস্য আসিফ আব্দুল্লাহ শোভন বিন কুদ্দুস, সাধারণ সম্পাদক মিল্টন উদ্দিন প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

শিক্ষামন্ত্রী দেশে কোচিং বাণিজ্য ও অবাধে নোট বই বিক্রি করার বিষয়ে বলেন, কোচিং পুরোটাই খারাপ নয়। কোনো শিক্ষার্থী যদি ফলাফল খারাপ করে বা লেখাপড়ায় অমনোযোগী থাকে তাহলে তার জন্য শিক্ষকের বাড়তি মনোযোগ দেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। তবে সেটার জন্য যদি টাকার বিনিময়ে কোচিং করতে বাধ্য করা হয় তবে তা অন্যায়। শিক্ষামন্ত্রী কোচিং বাণিজ্য ও নোট বই বিক্রি বন্ধ করতে প্রশাসনকে কঠোর হতে নির্দেশ দেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশ বরেণ্য শিল্পীরা সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন। বিডিটুডেস/এএনবি/ ১২ জানুয়ারি, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

7 + three =