English Version

রামগড়ে শিলং জুয়া খেলা বন্ধে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ সচেতন মহলের

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

মোহাম্মদ শাহেদ হোসেন রানা, রামগড় (খাগড়াছড়ি): পার্বত্য খাগড়াছড়ি রামগড় উপজেলার পৌর শহর সহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় চলছে ভারত থেকে নিয়ন্ত্রণ করা শিলং তীর নামক ইন্টারনেটভিত্তিক অনলাইন জুয়া। ভারতের শিলং নামক স্থান থেকে এই জুয়া পরিচালিত হয়। যেটি বাংলাদেশে শিলং তীর জুয়া নামে পরিচিত।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, করোনা ভাইরাসের জন্য সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় স্কুল, কলেজে পডুয়া ছাত্র সহ চাকুরীজীবি, রিকশা চালক, শ্রমজীবী পুরুষ এমনকি মহিলা সবাই অধিক লাভের আশায় এই শিলং তীর জুয়া খেলার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েছে। রামগড় পৌর এলাকা সহ উপজেলার প্রায় ১৫ টির মত স্থানে এই শিলং তীর জুয়া অনায়াসে চলছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে আরো জানায়, প্রতেকটি স্থানে একটি এজেন্টের মাধ্যমে পরিচালনা করা হয় অনলাইনভিত্তিক শিলং জুয়া খেলা। এতে ৮০ গুণ লাভের আশায় শিলং এর নেশায় সর্বশান্ত হচ্ছে রামগড়ের অর্থনীতি। এতে এজেন্টের লোক হাজার টাকার কমিশন হিসেবে মূল কোম্পানির কাছ থেকে ৬০ টাকা পেয়ে থাকে।

শিলং তীর জুয়া সকাল ৯টা শুরু হয়ে রাত ১১ টা পযর্ন্ত চলে। এই সময় সব এজেন্ট এর মাধ্যমে কর্তন দিতে হয় প্রধান এজেন্টদের কাছে। সপ্তাহে রবিবার ছাড়া বাকি ৬ দিন শিলং তীর অনলাইন জুয়া চলমান রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা জানান, অনলাইনভিত্তিক শিলং জুয়া খেলার এজেন্ট ও খেলোয়াড়ের আইনের আওতায় আনার পাশাপাশি যারা এটির পেছনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন, তাঁদেরকে যদি অতিদ্রুত আইনের আওতায় না আনা হয়, তাহলে এই শিলং জুয়া বন্ধ করা কঠিন হবে বলে মনে করেন তারা। তাই, এই জুয়া খেলা বন্ধে সচেতন মহল উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এ বিষয়ে রামগড় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মু. মাহমুদ উল্ল্যাহ মারুফ বলেন, শিলং জুয়া খেলাটির বিষয়ে অনেক অভিযোগ আছে। জুয়া খেলা আইনতো দণ্ডনীয় অপরাধ। এছাড়া জুয়া খেলার কারণে অনেকে পারিবারিক সহ আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েন। তবে শিলং জুয়া খেলা বন্ধে অতিদ্রুত উপজেলা প্রশাসন আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। বিডিটুডেস/এএনবি/ ১৮ নভেম্বর, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

10 − one =