English Version

লকডাউন পরবর্তী অবস্থায় আপনার করণীয়

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

বিশ্বজুড়ে প্রলয় সৃষ্টি করেছে ক্ষুদ্র আণুবীক্ষণিক জীব নভেল করোনাভাইরাস। দেশে দেশে চলছে লকডাউন। এখন বেঁচে থাকার তাগিদে লকডাউন উঠে যাচ্ছে। কিন্তু এখন নিয়মকানুন শিথিল হলেও আমাদের মাথায় রাখা দরকার, সরকারি নিয়ম যাই হোক না কেন, ব্যক্তিগতভাবেও আপনাকে কিছু নিয়ম মেনে চলতেই হবে।

লকডাউন থাকুক বা না থাকুক, নিরাপদ থাকার জন্য আমাদেরই সাবধান হত‌ে হবে। তাই বেঁচে থাকার তাগিদে বাহিরের লকডাউন শেষ হলেও, আপনাকে যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে…

১. কাউকে গায়ের কাছে ঘেঁসতে দেবেন না।

২. আগামী অন্ততঃ ৬ মাস (আনুমানিক) আরো দ্বিগুণ সাবধান হোন।

৩. মাস্কের সাথে ফেস্ শিল্ড ব্যাবহার করুন। বাইরে বেরোলে, খুব কার্যকরী।

৪. পকেটে সবসময় স্যানিটাইজার- প্রতি আধঘন্টা বা এক ঘন্টায় হাত ঘসুন।

৫. মোবাইলটি একটি পলিথিনে রাখুন।

৬. হেডফোন- না! কারণ এতে জীবাণু লেগে থাকতে পারে।

৭. স্পিকার মোডে কল রিসিভ- হ্যাঁ! মোবাইল কানের কাছে নিয়ে কল রিসিভ থেকে বিরত থাকুন।

৮. পাবলিক ট্রান্সপোর্টে ভিড় এড়ান, এটা সবচেয়ে রিস্কি জায়গা।

৯. বাড়ির বাইরে খাওয়া এড়ান, শুকনো High Calorie Snack যেমন: বাদাম, শুকনো ফল অল্প রাখুন সাথে, নিজের বোতল এ পানি তো বটেই।

১০. বেরিয়ে বা কাজে খাবার বা জল শেয়ারিং বন্ধ করুন।

১১. অপ্রয়োজনীয় লোকসমাগম এড়িয়ে চলুন।

১২. বাইরে থেকে বা বাজারে পাওয়া টাকা নোট আলাদা পলিথিনে আনুন – এনে পারলে দুদিন একটা ট্রেতে রেখে দিন খোলা হাওয়াতে।

১৩. যেখানে সেখানে হেলান দেওয়া , বসা, কনুইএ ভর দেওয়া – ভুলে যান।

১৪. একটা ক্যাপ মাথায় থাকলে ভালো, মহিলাদের ক্ষেত্রে ওড়না।

১৫. কাপড়ের ব্যাগ নিয়ে বেরোন- যা প্রায় ধোয়া যাবে- লেদার বা মোটা ক্যানভাসের ব্যাগের ফ্যাশন বাদ দিন।

১৬. ঘড়ি- না!

১৭. আংটি- না।

১৮. জুয়েলারী- না!

১৯. পাবলিক ওয়াশরুম- বুঝে শুনে!

২০. মাস্ক রোজ চেন্জ হবে, N95/KN95 কোনো দরকার নাই। সার্জিক্যাল হইলে ভালো, নইলে ৩ পরত কাপড়ের মাস্ক।

২১. গ্লাভস্ প্রয়োজন নেই, যদি বারবার হাত ধুতে পারেন- বরং গ্লাভ্স্ এ জীবানু লেগে থাকার রিস্ক বেশী।

২২. সঠিকভাবে মাস্ক পরুন নিজে নিরাপদ থাকুন অন্যকে নিরাপদ রাখুন।

ক. থুতনির নিচে মাস্ক ঝুলিয়ে রাখবেন না।

খ. মাস্ক দিয়ে নাক মুখ ঢেকে থুতনি উন্মুক্ত রাখবেন না।

গ. মুখ ও থুতনি ঢেকে নাক উন্মুক্ত রাখবেন না।

ঘ. ঢিলাঢালা ভাবে মাস্ক পরবেন না।

ডা: মো: রহমতউল্যাহ (শুভ)
এম,বি,বি,এস (চায়না)
ইন্টার্ণ চিকিৎসক নোয়াখালী সদর, হাসপাতাল।

বিডিটুডেস/এএনবি/ ০১ জুন, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

6 + fifteen =