English Version

সাংবাদিক হয়রানির প্রতিবাদে ইবি রিপোর্টার্স ইউনিটির মানববন্ধন

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

মুরতুজা হাসান, ইবি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও প্রগতিশীলতায় বিশ্বাসী সাংবাদিক সংগঠন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ডেইলি সানের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার ও হয়রানির ঘটনায় জড়িতদের এবং শামস জেবিনের উপর সন্ত্রাসী হামলার শাস্তির দাবিসহ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসগুলোতে স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিবেশ নিশ্চিতকরণের দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে।

(১৯ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক সংলগ্ন “মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব” ম্যুরালের পাদদেশে বাংলাদেশ ক্যাম্পাস জার্নালিস্ট’স ফেডারেশন এর সাথে একাত্মতা পোষণ করে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যকারী সদস্য মোস্তাফিজ রাকিবের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ইবি রিপোর্টার্স ইউনিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এইচ কবির, দপ্তর সম্পাদক মু্রতুজ হাসান ও প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক প্রিতম মজুমদারসহ প্রমুখ।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, তাসনিমুল হাসান, মোয়াজ্জেম হোসেন, তৌফিক আলম, জয়নাব খানম, মারিয়া জামান এশা, শাহিন আলম, সোহান সিদ্দিকী, তামজিদুল ফাহিমসহ ইবি রিপোর্টার্স ইউনিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। আর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেস ক্লাব ও সমিতি সহ অন্যান্য সংগঠন প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন। এসময় বক্তারা বলেন, আজ আমরা সারা বাংলাদেশের সাংবাদিক সমাজ একত্রিত হয়েছি স্বৈরাচারী ভিসি খোন্দকার নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে যিনি, ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে একটি মাত্র ফেসবুক স্ট্যাটাস দেওয়ার কারণে সুনির্দিষ্ট কারণ না দেখিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বহির্ভূত কাজ করে বহিষ্কার করেছেন তার প্রতিবাদে আমরা আজ সাংবাদিক সমাজ ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে নেমেছি।

স্বাস্থ্যের খবর জানুন

আমরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে বলতে চাই, আমরা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাঙ্গণ থেকে রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্যরা একত্রিত হয়ে সারা বাংলাদেশের ক্যাম্পাস জার্নালিস্ট ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ দূর্গ গড়ে তুলেছি, এরকম প্রতিবাদ দূর্গ গড়ে তুলেছিলেন বাংলাদেশের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৪৮,১৯৫২ সালে এবং ১৯৭১ এর স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে মানুষের বাক স্বাধীনতার জন্য আজীবন সংগ্রাম করে গিয়েছেন। বাক স্বাধীনতার সংগ্রামে আমরা সারা বাংলাদেশের সাংবাদিক সমাজ আজ ঐক্যবদ্ধ হয়েছি আমরা বলতে চাই, ভিসি খোন্দকার নাসির উদ্দিনের পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আমরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিবাদ করে যাবো।

এসময় বক্তারা আরও বলেন, দেশের চতুর্থ স্তম্ভ হচ্ছে সাংবাদিকতা আর এই সাংবাদিকতায় আঘাত আসলে আমরা প্রতিবাদ গড়ে তুলবো। আমার বাংলাদেশের সকল সাংবাদিকদের সাথে ছিলাম আছি এবং থাকব। সর্বোপরি বক্তারা বশেমুরবিপ্রবি’র কর্মরত সাংবাদিক ফাতেমা তুজ জিনিয়াকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার ও হয়রানির ঘটনায় প্রশাসনকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানান এবং শামস জেবিনসহ অন্য সাংবাদিকদের ওপর হামলা ও হয়রানির বিচার এবং সাংবাদিক হয়রানি ঘটনায় জড়িত প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের শাস্তি নিশ্চিত করার জোর দাবি জানান। সাংবাদিকরা বলেন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাঙ্গণ থেকে বলতে চাই বাংলাদেশের প্রতিটি ক্যাম্পাসে স্বাধীনভাবে সাংবাদিকতার পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। অন্যথায় প্রতিবাদ দূর্গ গড়ে তুলা হবে। আমরা হুশিয়ারি দিয়ে বলতে চাই সাংবাদিকতায় কোনো ধরণের বাঁধা কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা। বিডিটুডেস/এএনবি/ ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

1 × three =