English Version

সুনামগঞ্জে মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষের মাঝে খাবার প্রদান করছে ৬ যুবক

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

আল-হেলাল, সুনামগঞ্জ: করোনা ভাইরাসের কারণে সুনামগঞ্জের সবকিছু এখন বন্ধ। যে কারণে সুনামগঞ্জে অবস্থান করা মানসিক ভারসাম্যহীন (অপ্রকৃতস্থ) মানুষ খাদ্যসঙ্কটে চরম মানবেতর জীবন-যাপন করছিল। যাদের ঠিকানা রাস্তায়, ব্রীজে, ফুটপাতে কিংবা গাছতলায়। একসময় তাদের খাবার জুটত বিভিন্ন হোটেল-রেস্তুরা থেকে।

কিন্তু সবকিছু বন্ধ হয়ে গেলে অসহায় মানুষগুলো ক্ষুধার জ্বালায় আরও কাহিল হয়ে ওঠে। ঠিক এমন সময় তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে লাল মিয়া, আলমগীর, রকি, তপু, দিদার ও মহিমসহ ৬ জন হৃদয়বান কর্মজীবী যুবক। যারা নিজেরাও আজ বেকার। এরা প্রত্যেকে পর্যটন নির্ভর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী।

শনিবার (২৮ মার্চ) খোঁজ নিয়ে জানা যায়, করোণা ভাইরাস পরিস্থিতিতে জেলা শহরে লকডাউন শুরু হলে প্রত্যেকদিন রাতে ভারসাম্যহীন (অপ্রকৃতস্থ) মানুষদেরকে ১ বেলা খাবারের যোগান দিচ্ছেন এই যুবকরা। আগ্রহী এই যুবকদের মধ্যে লাল মিয়া জানান, এরাওতো কারও না কারও সন্তান। এ সমাজেরই মানুষ।

পৃথিবীতে ওদেরও অধিকার রয়েছে দু’বেলা-দু’মুঠো খাবার খেয়ে বেঁচে থাকার। এখন ওরা পেটপুরে খেতে পাচ্ছে। এমন মানবতার কর্ম দেখে নিত্যদিন কেউ না কেউ এগিয়ে আসছে ভারসাম্যহীন মানুষদের খাবার দিতে। সারা বিশ্বে করোনার আঘাতে মানবজাতি যখন দিশেহারা তখন বাংলাদেশও এর বাইরে নয়।

তাই মানবিক দিক বিবেচনায় এনে প্রান্তিক জেলা সদর সুনামগঞ্জে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আমরা তাদের মধ্যে খাবার বিলিয়ে দিচ্ছি। আমরা চাই আমাদের এ প্রচেষ্টায় সমাজের বিত্তবান মানুষরাও মানবতার রক্ষার তাগিদে ভূমিকা পালন করুক। বিডিটুডেস/এএনবি/ ২৯ মার্চ, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

3 × four =