English Version

১০/১২ বছরের মধ্যে এমন গুণী অভিনেত্রী দেখিনি: ইফতেখার চৌধুরী

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

ফয়সাল হাবিব সানি: বাংলাদেশের একজন অত্যন্ত স্বনামধন্য বাংলাদেশি-আমেরিকান চলচ্চিত্র পরিচালক ইফতেখার চৌধুরী। ২০১০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘খোঁজ দ্য সার্চ’ চলচ্চিত্র পরিচালনার মধ্য দিয়ে ঢালিউডে পা রাখেন এই দেশবরেণ্য চলচ্চিত্র নির্মাতা।

চলচ্চিত্রটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন অনন্ত জলিল, আফিয়া নুসরাত বর্ষা, ইয়ামিন খান ববি, সোহেল রানা, ইলিয়াস জাভেদ নিনো (ইতালি) সহ আরও অনেকে। উল্লেখ্য যে, অনন্ত জলিল, বর্ষা এবং ববি তিনজনেরই ক্যারিয়ারের মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম চলচ্চিত্র ‘খোঁজ দ্য সার্চ‘।

পরবর্তীতে ‘অগ্নি’ ‘অগ্নি-২’, ‘অ্যাকশন জেসমিন’, ‘বিজলি’, ‘দেহরক্ষী’, ‘রাজত্ব’, ‘এক রাস্তা’ প্রভৃতি বড়ো বাজেটের ব্যবসাসফল ছবি নির্মাণ করে একজন সফল চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে নিজের অবস্থান দৃঢ় করে নেন ইফতেখার চৌধুরী। এখন ইফতেখার চৌধুরী মানেই যেন বড়ো বাজেটের সুপার ডুপারহিট চলচ্চিত্র।

সম্প্রতি তিনি শুরু করেছেন তার নিজস্ব প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘সিনেবাজ’ থেকে মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘মুক্তি’ নামক একটি চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের কাজ। ইফতেখার চৌধুরী পরিচালিত চলচ্চিত্র আর সেই চলচ্চিত্রে কোনো চমক থাকবে না তা কীভাবে হয়! গত বছরে ঘোষণার পর থেকেই চলচ্চিত্রটিকে ঘিরে ঢাকা সিনেমা পাড়ায় তৈরি হয়েছিলো ব্যাপক আলোচনার ঝড়। কেননা এই চলচ্চিত্রে এক নায়িকার বিপরীতে অভিনয় করছেন নয়জন চিত্রনায়ক।

তারা হচ্ছেন- কায়েস আরজু, আমান রেজা, আদর আজাদ চৌধুরী, আনিসুর রহমান মিলন, রাশেদ মামুন অপু, ক্রিস্টিয়ানো তন্ময়, আরেফিন জিলানী, খিজির হায়াত খান এবং দুর্জয় মামুন। আর প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন ‘দহন’ চলচ্চিত্র থেকে উঠে আসা অত্যন্ত সম্ভাবনায়ময়ী প্রতিশ্রতিশীল নবাগতা চিত্রনায়িকা রাজ রিপা।

আপন মহিমায় ও প্রতিভায় সমুজ্জ্বল এই চিত্রনায়িকাকে ইতোমধ্যেই দেশের কিংবদন্তী চিত্রনায়িকা শাবানার সঙ্গে তুলনা করেছেন ‘মুক্তি’ সিনেমা সংশ্লিষ্ট সকলেই। শুটিং সেটে রাজ রিপার অভিনয়ে পঞ্চমুখ পরিচালক, নয়জন চিত্রনায়ক থেকে শুরু করে সিনেমার টেকনিশিয়ানরাও।

`মুক্তি’ চলচ্চিত্রের শুটিংয়ে এমন কিছু রিস্কি দুঃসাধ্য শট নিয়েছেন এই অভিনেত্রী, যা সেটের সকলকেই তাক লাগিয়ে দিয়েছে। এই কনকনে শীতেও ৮ ঘণ্টা পানিতে থেকে শুটিং করে বিস্ময়ও সৃষ্টি করেছেন তিনি। আর তিনিই বাংলাদেশ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে এমন একজন ভাগ্যবতী নায়িকা, যিনি পূর্ণাঙ্গ নায়িকারূপে অভিষিক্ত তার প্রথম ছবিতেই হিরো হিসেবে নয়জনকে পেয়েছেন; যা এই যাবৎকাল অবধি বাংলা কোনো চলচ্চিত্রে বিরল।

আর সিনেমাটি মূলত নির্মিত হচ্ছে নোয়াখালীর সাধারণ একটা মেয়ে ‘মুক্তি’ কীভাবে সময়ের প্রয়োজনে অনন্য অসাধারণ নারীতে পরিণত হয় তার উপর ভিত্তি করে। আমাদের বর্তমান সমাজে এখনও নারীরা পদে পদে লাঞ্চিত, বঞ্চিত এবং নানান প্রতিবন্ধকতার শিকার। কিন্তু একজন নারী হয়েও কীভাবে সকল প্রতিকূলতাকে অতিক্রম করে জীবনযুদ্ধে জয়ী হওয়া যায় সেই চরিত্রটিই করবেন রাজ রিপা।

সিনেমায় তিনি নোয়াখালীর আঞ্চলিক ভাষাতে কথা বলবেন, যা দর্শকদের মনেও সৃষ্টি করবে বাড়তি বিনোদনের খোরাক। ঢাকাই চলচ্চিত্রে প্রবল সম্ভাবনা জাগানিয়া এই চিত্রনায়িকা মূলত নিজের যোগ্যতা, দক্ষতা, মেধা, প্রজ্ঞা আর প্রতিভার সমন্বয়ে শুটিংয়ে কঠিন কঠিন শটগুলো নিজেই দিয়েছেন। এইজন্য বাড়তি কোনো টেকনিশিয়ানের সহযোগিতা তাকে গ্রহণ করতে হয়নি, অভিনয়ও শিখিয়ে দিতে হয়নি অন্যান্যদের মতো। নিজের থেকেই আপন মহিমার আলোকে নিজের জাত চিনিয়েছেন তিনি।

আর এবার তাকে নিয়েই সবথেকে প্রশংসিত মন্তব্য করে বসেছেন পরিচালক ইফতেখার চৌধুরী। তার ভাষ্যমতে, বাংলাদেশ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ১০/১২ বছরের মধ্যে এমন প্রতিভাবান গুণী অভিনেত্রী তিনি দেখেননি। আর সবকিছু মিলিয়ে ‘মুক্তি’ মুক্তির আগেই রাজ রিপা পেয়ে গেছেন বাংলাদেশের পরবর্তী সুপার হিরোইন হিসেবে নিজেকে প্রমাণের তকমা, বনে গেছেন পত্রিকা, মিডিয়া সহ সিনেমাপ্রেমি মানুষের আলোচনার অন্যতম কেন্দ্রবিন্দু।

স্বপ্ন মানুষের জীবনের সবথেকে চরম সত্য। স্বপ্ন আর কঠোর পরিশ্রম মানুষকে নিয়ে যায় কখনো কখনো এমন এক অনন্য উচ্চতায় যা ওই মানুষটি হয়তোবা কল্পনাও করে না নিদ্রামত্ত অবস্থায়। রাজ রিপাও স্বপ্ন দেখেছেন এমন কোনো চলচ্চিত্রে অভিনয়ের, যেখানে তিনি সুযোগ পাবেন নিজেকে পুরোপুরিভাবে মেলে ধরার।

অবশেষে পেয়ে গেলেনও সেই সুযোগ। আর তা খুব ভালোভাবেই কাজে লাগাচ্ছেন সিনেমা মুক্তির পূর্বেই নানানভাবে আলোচিত এই চিত্রনায়িকা। তাইতো বারবার প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। প্রশংসায় অভিভূত রাজ রিপা তাই হয়ে উঠেছেন আরও বেশি অসাধারণ, আরও বেশি সম্ভাবনার উজ্জীবিত আলোক সোপান।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের ১১ তারিখ থেকেই (সোমবার) বিভিন্ন লোকেশনে সিনেমাটির দৃশ্যধারণের কাজ শুরু হয়েছে। তিনটি লটে সিনেমাটি শেষ হবার পরিকল্পনা রয়েছে পরিচালকের। চলছে দ্বিতীয় লটের শুটিং। তৃতীয় লটের শুটিং ফেব্রুয়ারির ১২ তারিখ (শুক্রবার) থেকে শুরু হবার কথা। মানুষ এখন প্রহর গুণছে ‘মুক্তি’র মুক্তিকে রূপালি পর্দায় দেখার। আর রাজ রিপা যেন হয়ে উঠেছে সেই ‘মুক্তি’র বিচ্ছুরিত উজ্জ্বল তারকারশ্মি।

ইফতেখার চৌধুরীর প্রশংসা করে এই চিত্রনায়িকা বলেন, ‘ইফতেখার স্যার খুবই গুণী একজন নির্মাতা। তার চলচ্চিত্রে কাজ করতে পারাটাই আমার জন্য সৌভাগ্যের ছিলো।

আর তার কাছে আমি এমন কিছু অভূতপূর্ব প্রশংসা পেয়েছি যা আমার মানসিক শক্তি, আত্মবিশ্বাস, মনোবল ও উদ্যমতাকে বাড়িয়ে দিয়েছে আরও বহুগুণে। নির্দ্বিধায় বলতে পারি, দর্শকরা এমন একটা চলচ্চিত্র দেখতে চলেছেন, যা বাংলাদেশের সিনেমা জগতে নতুন কোনো অধ্যায়ের সূচনা করবে বলে আমার প্রত্যয়, অভিব্যক্তি ও দৃঢ়তর বিশ্বাস।’ বিডিটুডেস/এএনবি/ ০১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

3 × two =